হাতের কাছে মামলা থুয়ে কেন ঘুরে বেড়াও ভেয়ে-লালন শাহ

লালন শাহ এর গান হাতের কাছে মামলা থুয়ে কেন ঘুরে বেড়াও ভেয়ে – আজকের আয়োজন

হাতের কাছে মামলা থুয়ে কেন ঘুরে বেড়াও ভেয়ে

 

হাতের কাছে মামলা থুয়ে কেন ঘুরে বেড়াও ভেয়ে-লালন শাহ

হাতের কাছে মামলা থুয়ে কেন ঘুরে বেড়াও ভেয়ে ।

ঢাকা শহর দিল্লি-লাহোর খুঁজলে মেলে এই দেহে ॥

মনের ধোঁকায় যেথায় যাবি

ধাক্কা খেয়ে হেথায় ফিরবি

এমনি ভাবে ঘুরে মরবি

সন্ধান না পেয়ে ॥

গয়া-কাশী মক্কা-মদিনা

বাইরে খুঁজলে ধান্দা যায় না

দেহরতি খুঁজলে পাবি

সকল তীর্থের ফল তাহে ॥

দেখ দেখি মন রে আমার

অবিশ্বাসের ধন প্রাপ্তি হয় কার

যার বিশ্বাসের মন, নিকটে পায় ধন

লালন ফকির যায় কয়ে ॥

হাতের কাছে মামলা থুয়ে কেন ঘুরে বেড়াও ভেয়ে-লালন শাহ

 

লালনের গানের সংগ্রহ

লালনের গান “লালনগীতি” বা কখনও “লালন সংগীত” হিসেবে প্রসিদ্ধ। লালন মুখে মুখে গান রচনা করতেন এবং সুর করে পরিবেশন করতেন। এ ভাবেই তার বিশাল গান রচনার ভাণ্ডার গড়ে ওঠে। তিনি সহস্রাধিক গান রচনা করেছেন বলে ধারণা করা হয়। তবে তিনি নিজে তা লিপিবদ্ধ করেন নি।

তার শিষ্যরা গান মনে রাখতো আর পরবর্তীকালে লিপিকার তা লিপিবদ্ধ করতেন। আর এতে করে তার অনেক গানই লিপিবদ্ধ করা হয় নি বলে ধারণা করা হয়।বাউলদের জন্য তিনি যেসব গান রচনা করেন, তা কালে-কালে এত জনপ্রিয়তা লাভ করে যে মানুষ এর মুখে মুখে তা পুরো বাংলায় ছড়িয়ে পড়ে।

কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর লালনের গানে প্রভাবিত হয়ে, প্রবাসী পত্রিকার ‘হারামণি’ বিভাগে লালনের কুড়িটি গান প্রকাশ করেন।  মুহম্মদ মনসুরউদ্দিন একাই তিন শতাধিক লালন গীতি সংগ্রহ করেছেন যা তার হারামণি গ্রন্থে সংকলিত হয়েছে। এ ছাড়াও তার অন্য দুটি গ্রন্থের শিরোনাম যথাক্রমে ‘লালন ফকিরের গান’ এবং ‘লালন গীতিকা’ যাতে বহু লালন গীতি সংকলিত হয়েছে।

জ্যোতিরিন্দ্রিনাথ ঠাকুর সম্পাদিত ‘বীণা’, ‘বাদিনী’ পত্রিকায় ৭ম সংখ্যা ২ ভাগ (মাঘ) ১৩০৫-এ ‘পারমার্থিক গান’ শিরোনামে লালনের ‘ক্ষম অপরাধ ও দীননাথ’ গানটি স্বরলিপিসহ প্রকাশিত হয়। এ পত্রিকায় ৮ম সংখ্যা ২ ভাগ (ফাগুন) ১৩০৫-এ প্রকাশিত আরেকটি লালনগীতি ‘কথা কয় কাছে দেখা যায় না’ দুটি গানেরই স্বরলিপি করেন ইন্দিরা দেবী।

প্রেমদাস বৈরাগী গীত এ লালন গীতি সংগ্রহ করেছিলেন মুহম্মদ মনসুরউদ্দীন এবং তা মাসিক প্রবাসী পত্রিকার হারামণি অংশে প্রকাশিত হয়েছিল।লালনের গানের কথা, সুর ও দর্শনকে বিভিন্ন গবেষক বিভিন্নভাবে উল্লেখ করেছেন। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, লালন গবেষক আবুল আহসান চৌধুরী বলেন, অনেক গান যাতে লালন বলে কথাটির উল্লেখ আছে তার সবই প্রকৃতপক্ষে লালনের নয়I

হাতের কাছে মামলা থুয়ে কেন ঘুরে বেড়াও ভেয়ে-লালন শাহ

 

মন্টু শাহ নামের একজন বাউল, তিন খণ্ডের একটি বই প্রকাশ করেছেন যাতে তিনি মনিরুদ্দিন শাহ নামক লালনের সরাসরি শিষ্যের সংগৃহীত লালন সংগীতগুলো প্রকাশ করেছেন।

আরও দেখুন :

হাতের কাছে মামলা থুয়ে কেন ঘুরে বেড়াও ভেয়ে-লালন শাহ

সখি সে হরি কেমন বল্‌ | নজরুল সঙ্গীত | কাজী নজরুল ইসলাম

Leave a Comment